৮ বছর ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ লাইসেন্স দিয়ে গাড়ি চালাচ্ছেন ডিএনসিসির চালক

৮ বছর ধরে লাইসেন্সের মেয়াদ নেই ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) এক গাড়িচালকের। এমনকি চালক ও গাড়ির বি'রুদ্ধে কোনও মা'মলাও নেই। ৮ বছর ধরে এভাবে গাড়ি চলছে। অবশেষ রাজধানীর ধানমন্ডির ২৭ নম্বর সড়কে শিক্ষার্থীদের তল্লা'শিতে ধ'রা পরে বিষয়টি। শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে ওই চালককে মা'মলা দেওয়া হয়।

রবিবার (২৮ নভেম্বর) বেলা পৌনে ২টার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে এই ঘটনা ঘটে। দুপুর থেকে শিক্ষার্থীরা এখানে সড়ক অবরোধ করে গাড়ি ও চালকের কাগজপত্র তল্লা'শি করছিল। এসময় অনেক অসঙ্গতি ধ'রা পরে। কারও গাড়ির ফিটনেস নেই, কারও গাড়ির নিবন্ধন নেই। আবার কারও গাড়ি চালানোর লাইসেন্সই নেই। লাইসেন্স থাকলেও অনেকের আবার মেয়াদ নেই।

এসময় সংসদ সদস্য, পু'লিশ, সচিব, সরকারি বেসরকারি ও বিভিন্ন উচ্চপদস্থ কর্মক'র্তা ও গণপরিবহনের গাড়ির কাগজপত্রও তল্লা'শি করে শিক্ষার্থীরা।

তল্লা'শির সময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের একটি গাড়ি আ'ট'ক করে শিক্ষার্থীরা। গাড়ি নম্বর ঢাকা মেট্রো ঠ ১৩-২৮৩৮। গাড়ির চালক মো. রাজু আহমেদ। শিক্ষার্থীরা তার লাইসেন্স দেখতে চাইলে, রাজু তার লাইসেন্স বের করে দেন। লাইসেন্সটি পেশাদার। এটি ইস্যু করা হয়, ২০০৮ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর। মেয়াদ শেষ হয় ২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর। গত আট বছর ধরে তার লাইসেন্সের মেয়াদ নেই।

রাজু বলেন, ‘আলসেমি করে লাইসেন্সের মেয়াদ বাড়ানো হয়নি।’

শিক্ষার্থীরা পরে পু'লিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হাবিবুর রহমানকে ডেকে আনেন। তিনি কাগজপত্র তল্লা'শি করে চালককে দুই হাজার টাকার একটি মা'মলা দেন। টাকা পরিশোধ করে চালক গাড়ি নিয়ে চলে যান।

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির পর গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধি হয়। এনিয়ে প্রথমে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে পরে। এর মধ্যে গত ২৪ নভেম্বর ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়িচাপায় নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসান মা'রা যান। এরপর শিক্ষার্থীরা আরও বিক্ষুব্ধ হয়। এরপর ২৬ নভেম্বর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির চাপায় কবির হোসেন নামে এক সাবেক গণমাধ্যমকর্মী মা'রা যান।

শিক্ষার্থীরা গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধির পর থেকে এ মাসের ৫ তারিখ থেকে নয় দফা দাবিতে আ'ন্দোলন করছে। গাড়ির হাফ পাশ নিশ্চিত করা তাদের অন্যতম দাবি।

Back to top button

You cannot copy content of this page