নির্মাণের দ্বিতীয় বছরই ভেঙে পড়ল ৩৬ লাখ টাকার ব্রিজ

সিরাজগঞ্জের শাহ'জাদপুর উপজে'লার জালালপুর ইউনিয়নের রূপসী-ঘাটাবাড়ি সড়কের ঘাটাবাড়ি এলাকায় নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে ৩৬ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত কংক্রিট ব্রিজটি গত শনিবার সকালে ব'ন্যার পানির তোড়ে ভেঙে যায়।

ওই এলাকার ৫ গ্রামের প্রায় ৪ হাজার মানুষের যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় গ্রামবাসীর পণ্যবাহী পরিবহণ ও চলাচল করতে হচ্ছে নৌকায়।

এ বিষয়ে এলাকাবাসী জানান, দুই বছর আগে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ৩৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ৩৮ ফুট দৈর্ঘ্য কংক্রিট ব্রিজটি নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে নির্মাণ করা হয়। ফলে বর্ষার শুরুতেই সামান্য পানির চাপে ব্রিজের দুই পাশের মাটি ধসে যায়। এখন ব'ন্যার পানি কমতে থাকলেও গত শনিবার সকালে হঠাৎ ব্রিজটির মাঝ বরাবর ভেঙে পানিতে পড়ে যায়। ব্রিজটি নির্মাণে ব্যাপক দু'র্নীতি হওয়ায় এ অবস্থা হয়েছে।

এ বিষয়ে জালালপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড সদস্য মহির উদ্দিন বলেন, ব'ন্যার পানির চাপে কিছুদিন আগে ব্রিজটির দুই পাশের মাঠি ধসে যায়। এখন ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় এলাকাবাসীর যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ব'ন্যার পানি সরে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এখানে নতুন করে ব্রিজ নির্মাণ করা না হলে বছরের পর বছর এলাকাবাসীর যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হবে।

এছাড়া এ সড়কের আরও দুটি স্থান ব'ন্যার পানিতে ভেঙে গেছে। এ দুটি স্থানও দ্রুত সময়ের মধ্যে মাটি ভরাট করে চলাচলের উপযোগী করতে হবে।

এ বিষয়ে জালালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ বলেন, বিষয়টি পিআইওকে জানানো হয়েছে। এছাড়া ব'ন্যার পানি সরে গেলে ওখানে নতুন একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। তখন আর যাতায়াতে কোনো সমস্যা থাকবে না।

এ বিষয়ে শাহ'জাদপুর উপজে'লা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মক'র্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, ব্রিজটি রক্ষার সর্বাত্মক চেষ্টা করেও ব'ন্যার পানির চাপে শেষ রক্ষা হয়নি। তবে ব'ন্যার পানি সরে গেলে এলাকাবাসীর যাতায়াত স্বাভাবিক করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে

Back to top button

You cannot copy content of this page