ভাঙা পা নিয়েও সেবা দিচ্ছেন অ'তিরিক্ত পু'লিশ সুপার

ভোলার লালমোহন সার্কেলের অ'তিরিক্ত পু'লিশ সুপার মো. রাসেলুর রহমান। তিনি গত শুক্রবার বাসার সিঁড়ি দিয়ে নামতে গিয়ে পায়ে মা'রাত্মকভাবে আ'ঘাতপ্রাপ্ত হন।

এরপর চিকিৎসার জন্য তাকে ডাক্তারের কাছে নিলে বাম পায়ে ফ্র্যাকচারের কারণে প্লাস্টার করা হয়। পরে অ'তিরিক্ত পু'লিশ সুপার রাসেলুর রহমানকে ১৪ দিন বেড রেস্টে থাকার পরাম'র্শ দেন চিকিৎসক।

তবে অ'সুস্থ শরীর নিয়েও তিনি নিয়মিত অফিসের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রতিদিন লালমোহন সার্কেল অফিসে বিভিন্ন ধরনের সেবা নিতে তার কাছে অর্ধশতাধিক মানুষ আসেন। সোমবারও অ'সুস্থ শরীরে মানুষের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কথা বলতে দেখা গেছে দায়িত্ববান পু'লিশ কর্মক'র্তা মো. রাসেলুর রহমানকে।

ডাক্তারের পরাম'র্শের পরেও অ'সুস্থ শরীরে অফিসের কার্যক্রম পরিচালনার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অ'সুস্থতার কারণে ডাক্তার ১৪ দিন সম্পূর্ণ রেস্টে থাকতে বলেছে। তবে তা পারছি না। লালমোহন ও বোরহানউদ্দিন দুই উপজে'লার দূর-দূরান্ত থেকে অনেক মানুষ আসছেন তাদের সমস্যা নিয়ে। তাদের দুর্ভোগ লাঘবে মানবিক দিক বিবেচনা করে নিজে অ'সুস্থ হওয়ার পরও অফিসের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। কেউ যাতে আমা'র কারণে ভোগান্তির শিকার না হন সবসময় সেই চেষ্টাই করে যাচ্ছি।

Back to top button

You cannot copy content of this page